আপনার একটু সচেতনতা রোধ করতে পারে স্তন ক্যান্সার!

  • তাসফিয়া আমিন
  • মার্চ ১৪, ২০২০

গোটা বিশ্বে নারীরা সবচেয়ে বেশি যে ক্যান্সারে আক্রান্ত হন তার মধ্যে স্তন ক্যান্সার অন্যতম। সাধারণত; জীবনযাপন পদ্ধতি, খাদ্যাভাস, অজ্ঞতার কারণে এ রোগে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। সচেতন হতে আপনার কি করনীয় জেনে নিনঃ

- স্তনে হাত দিয়ে পরীক্ষা করার সময় যদি কোনও মাংসপিন্ডর মতো কিছু বুঝতে পারেন, সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তার দেখান।
 
- অধিকাংশ ক্ষেত্রেই স্তনের টিউমার বিনাইন টিউমার হয় এবং চিকিৎসায় সেরে যায়। কিন্তু যদি এই বিনাইন টিউমারও চিকিৎসা না করিয়ে ফেলে রাখেন, তা হলে পরবর্তীকালে স্তন ক্যান্সার হতেই পারে।
 
- কোনও রকম অস্বাভাবিক পরিবর্তন দেখলে ম্যামোগ্রাফি এবং পরবর্তী সব পরীক্ষার মাধ্যমে নিশ্চিত হয়ে নিন, আদৌ আপনি স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত কি না।
 
- স্তন ক্যান্সার প্রাথমিক অবস্থায় ধরা পড়লে, সারিয়ে তোলা সম্ভব। শরীরের অন্যান্য জায়গায় ক্যান্সার থাবা বসানোর আগেই তাকে নির্মূল করতে পারেন আপনি । কষ্টকর অকাল মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা পেতে হলে, লজ্জা ছেড়ে বেরিয়ে আসতে হবে আপনাকেই।
 
- নিজে জানুন, অন্যকেও জানান। বাড়ির অন্য কোনও সদস্য বা চেনা কেউ এই রোগে আক্রান্ত হলে তার পাশে দাঁড়ান। অপ্রাসঙ্গিক সমালোচনা ছড়াবেন না বা কাউকে করতেও দেবেন না। স্তন ক্যান্সার ছোঁয়াচে রোগ নয় বা একজনের হলে পরিবারের অন্য কারও হয় না।
 
- মানসিক সাহস, সামান্য সহানুভূতির হাত আর নিজের প্রতি একটু ভালোবাসা থাকলে জীবনের পথে বহু বিপদকে অবলীলায় ছুঁড়ে ফেলা যায়। নিজেকে ভালোবাসুন সবার আগে, বাকি ভালোবাসাটা না হয় রইলো অন্যদের জন্য।

Leave a Comment