প্রতিদিন বাচ্চাকে নুডলস খাওয়াচ্ছেন? বাচ্চার ক্ষতি করছেন না তো?

  • তাসফিয়া আমিন
  • মে ১৩, ২০২০

শর্টকাটে বাচ্চার নাস্তা তৈরি করছেন নুডলস দিয়ে? অনেকে আবার চটপট নুডলস বানিয়ে দেন বাচ্চার রাতের খাবার হিসাবে। বাচ্চা তো এমন মজাদার খাবার পেয়ে মহাখুশি। কিন্তু রোজ রোজ নাস্তা হিসেবে নুডলস বাচ্চার ক্ষতি করছে না তো ? নিজের অজান্তেই সন্তানকে বিপদের মুখে ফেলছেন না তো?

বেশির ভাগ বিশেষজ্ঞই কিন্তু ইনস্ট্যান্ট নুডলসের বিষয়ে কড়া ভাষায় ‘না’ বলছেন। কারণ, ইনস্ট্যান্ট নুডলস আর পাঁচটা প্যাকেজড খাবারের মতোই। কারণ যতই নিজেদের ব্র্যান্ড সম্পর্কে লম্বা-চওড়া কথা বলুক কোম্পানিগুলি, প্রিজারভেটিভ ছাড়া কিন্তু নুডলস সংরক্ষণ করাই সম্ভব নয়।

সবচেয়ে ভয়ের কথা হল, বিজ্ঞাপনে যাই প্রচার হোক, ইন্সট্যান্ট নুডলসে মোনোসোডিয়াম গ্লুটামেটের উপস্থিতির কথা উড়িয়ে দেওয়া যায় না। এমনকি থাকতে পারে ট্রেটবিউটিলহাইড্রোকুইনন (টিবিএইচকিউ)-এর মত মৌলও। এগুলি প্রতিটিই শরীরের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর।

এমএসজি-এর রাসায়নিক ক্রিয়ার ফলে স্নায়ুতন্ত্রের স্থায়ী ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। অন্য দিকে টিবিএইচকিউ ক্ষতি করে লিভারের।

তাই বাচ্চাকে রোজ নুডলস দেওয়া থেকে বিরত থাকুন। স্বাস্থ্যকর খাবারের অভ্যাস গড়ে তুলুন।

নুডলসের রাসায়নিক ক্ষতি করছে শরীরের।

নুডলসে থাকে কার্বোহইড্রেট ও প্রচুর ট্রান্স ফ্যাট। শুধু কার্বোহাইড্রেট খেলে সব ঘাটতিগুলি মিটবে না। এ ছাড়া বেশির ভাগ নুডলস তৈরি হয় ময়দা দিয়ে। পুষ্টিবিদদের মতে, ময়দা হজম করা খুব সহজ নয়। অন্য দিকে ময়দা কোলেস্টরেলের সমস্যাও তৈরি করতে পারে। জানেন কি, নুডলস থেকে কী কী রোগ বাসা বাঁধতে পারে শরীরে?

সংরক্ষণে ব্যবহৃত এমএসজি-এর মতো রাসায়নিকের কারণে স্নায়ুতন্ত্রে সমস্যা দেখা দিতে পারে।

লিভারের ক্ষতিও হতে পারে টিবিএইচকিউ-এর প্রভাবে।

কোলেস্টরেল বেড়ে যেতে পারে।

দেখা দিতে পারে উচ্চরক্তচাপ ও ডায়াবিটিসের সমস্যাও।

Leave a Comment